সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

পিছিয়ে গেল মেসি-নেইমারদের কোপা আমেরিকাও

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন ফুটবল টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকা। এই টুর্নামেন্টে খেলে থাকে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুই ফুটবল দেশ ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। যে কারণে টুর্নামেন্টের আবেদন থাকে সবচেয়ে বেশি। সময়ের অন্যতম সেরা দুই তারকা লিওনেল মেসি ও নেইমারও বিগত কয়েকটি টুর্নামেন্টে নিয়মিত খেলছেন। খেলার কথা ছিল চলতি বছরের জুনে হতে যাওয়া আসরেও।

কিন্তু মরণঘাতী করানোভাইরাসের কারণে এক বছরের জন্য পিছিয়ে গেছে কোপা আমেরিকার এবারের আসর। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত হবে দক্ষিণ আমেরিকান অঞ্চলের সর্বোচ্চ এই ফুটবল আসর। যে কারণে আপাতত দেশের জার্সিতে মাঠে নামা হচ্ছে না নেইমার ও মেসিদের। এবারের টুর্নামেন্টে যৌথভাবে আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ায় হওয়ার কথা ছিল। করোনার থাবায় আগামী এক বছরের জন্য ইউরো ২০২০ স্থগিত করার উয়েফার ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কনমেবল এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ায় ইতোমধ্যেই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ, কোপা লিবারটেডর্সসহ সব দেশের জাতীয় ফুটবল লীগগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। যে কারণে বিশ্বজুড়ে ফুটবলসহ অন্যান্য ক্রীড়া আয়োজনগুলো মুখ থুবড়ে পড়েছে। ফুটবল ছাড়াও টেনিস, গলফ, রাগবি ও ফর্মুলা ওয়ানের বিশ্ব আসরগুলো পিছিয়ে গেছে অথবা বাতিল হয়েছে। কোপা পেছানো প্রসঙ্গে কলম্বিয়ার ক্রীড়ামন্ত্রী আর্নেস্টো লুসেনা বলেন, এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত হতাশার। কোপা আমেরিকা আয়োজন নিয়ে আমরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলাম। কিন্তু মানুষের জীবন ও স্বাস্থ্য সবার আগে। আর দক্ষিণ আমেরিকা ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল বলেছে, অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতির জন্য এ সিদ্ধান্ত নিতে আমরা বাধ্য হয়েছি। এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়া খুব একটা সহজ নয়। কিন্তু তারপরও আমরা সবসময়ই খেলোয়াড় ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলের স্বাস্থ্যের নিরাপত্তার বিষয়টি প্রাধান্য দিয়ে থাকি। আশা করছি আগামী বছরও দলগুলো পরিপূর্ণ প্রস্তুতি নিয়েই মাঠে নামবে। পুনঃনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী ২০২১ সালের ১১ জুন থেকে ১১ জুলাই হবে কোপা আমেরিকা। এই প্রথমবারের মতো দুই দেশে একসঙ্গে কোপা আমেরিকা আয়োজন করার কথা ছিল। এবারের আসরে ১২টি দল অংশ নেবে। অস্ট্রেলিয়া ও ২০২২ বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতারকে প্রতিযোগিতায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

২০১৯ সালে ঘরের মাঠে সর্বশেষ কোপা শিরোপা জয় করেছে ব্রাজিল। ঐতিহাসিক মারাকানা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে রেকর্ড সর্বোচ্চ পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা ৩-১ গোলে পেরুকে বিধ্বস্ত করে শিরোপা জয় করে। কলম্বিয়া এর আগে একবারই কোপা আমেরিকার স্বাগতিক হয়েছে। ২০০১ সালের ওই আসরে তারা শিরোপাও জয় করেছিল। যা তাদের একমাত্র শিরোপা জয়। ২০২৪ সালের কোপা আমেরিকা অনুষ্ঠিত হবে ইকুয়েডরে। ইতোমধ্যে ইউরো ২০২০ ফুটবল আসর এক বছর পিছিয়ে ২০২১ সালে নিয়েছে উয়েফা কর্তৃপক্ষ। আর এতেই আসছে জুনে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ও ইউরোপা লীগ ফাইনালের নতুন সূচী নির্ধারিত হয়েছে। এক ভিডিও কনফারেন্স মিটিংয়ে উয়েফার বোর্ড পরিচালকরা ক্লাব পর্যায়ের শীর্ষ দুই লীগের ফাইনালের জন্য নতুন তারিখ ঠিক করেন। যেখানে বলা হয় চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৭ জুন। আর দ্বিতীয় সেরা ইউরোপা লীগের ফাইনালের জন্য ২৪ জুন বেছে নেয়া হয়েছে। ভেন্যু হিসেবে তুরস্কের ইস্তানবুলেই চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগ এবং ইউরোপা লীগের আগের ফাইনালের সূচী ছিল যথাক্রমে ৩০ ও ২৭ মে।