সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

“মাদকসেবী বড় গলায় কথা বলবে আর তার দাম্ভিকতায় সাধারণ মানুষ নিচু হবে- আমাদের ইস্তফা দিয়ে চলে যাওয়া উচিত”

মুন্সীগঞ্জের নবনিযুক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন রবিবার সন্ধ্যায় তাঁর কার্যালয়ের সভা কক্ষে সাংস্কৃতিক কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। -সভ্যতার আলো

স্টাফ রিপোর্টার
“কোন মাদক ব্যবসায়ীকে সমূহ করে আমরা চলবো, আর কোন মাদকসেবী বড় গলায় কথা বলবে আর সাধারণ মানুষ তার দাম্ভিকতায় নিচু হয়ে কথা বলবে। এইভাবে আমি মনে করি আমারও বেঁচে থাকা ঠিক হবে না, আর আমরা যারা পুলিশে চাকুরী করি, মনে হয় আমাদের ইস্তফা দিয়ে চলে যাওয়া উচিত”। মুন্সীগঞ্জের নবনিযুক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন রবিবার সন্ধ্যায় তাঁর কার্যালয়ের সভা কক্ষে সাংস্কৃতিক কর্মীদের সাথে মতবিনিময় কালে এই উক্তি করেন। তিনি বলেন, “এই কাজটি এখানে হতে দেব না। যেখানে মাদক সেবীরা ইভটিজিং এবং নানা অপরাধ করবে বড় গলায় চলবে, আর সাধারণ মানুষরা কষ্ট করবে; তা হতে পারে না। মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হচ্ছে। সে যত বড়, আর যত প্রভাবশীই হন না কেন, কোন রকমের ছাড় দেয়া হবে না।”
পুলিশ সুপার এই সংক্রান্তে সঠিক তথ্য আহŸান করেন এবং পুলিশের কোন অনিয়মের ব্যাপারে অভিযোগ থাকলেও গোপন রাখার শর্তে সরাসরি জানাতে বলেন। পুলিশ সুপার বলেন, পুলিশ ভেরিফিকেশন বা জিডির নামে টাকা গ্রহণ বা পুলিশ কোন অনিয়ম করবে তাও এখানে হবে না। এসপি বলেন, “মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার” এই ¯েøাগান বাস্তবায়নে বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করছে।
এই আয়োজনটি পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান। মতবিনিময়ে অংশ নেন সস্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মতিউল ইসলাম হিরু, সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহিন মো. আমানুল্লাহ, মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি ও অন্বেষণ বিক্রমপুর সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, সস্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহসভাপতি মনিরুজ্জামান শরীফ, নাট্যকার শিশির রহমান, সংগঠক অ্যাডভোকেট গোলাম মওলা তপন, কাউন্সিলর নার্গিস আক্তার, নাট্যকার জাহাঙ্গীর আলম ঢালী, নাট্যকার হুমায়ুন ফরিদ, মুন্সীগঞ্জ নাগরিক সমন্বয় পরিষদ আহŸায়ক অ্যাডভোকেট সুজন হায়দার জনি, সস্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হোসাইন জাকির, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকা, নাট্যাভিনেতা মো. রানু, অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, আবু সাত্তার মুন্সী বাবু, নুরুন্নবী মুন্না, তামান্না সরকার মনি, সুমি আক্তার, বাউল জাহাঙ্গীর জিতু চন্দ্র রায়, মোঃ শামীম শেখ তুষার রায়, অনিক পাল পার্থ প্রমুখ।
উন্মুক্ত আলোচনায় সাংস্কৃতিক কর্মীরা মুন্সীগঞ্জ জেলার সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের নানান বিষয় তুলে ধরেন। সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত জেলা গড়ার ক্ষেত্রে সাংস্কৃতিক কর্মীরা ভূমিকা রাখাতে ইচ্ছা প্রকাশ করেন। একই সাথে পুলিশ সুপার মাদক বিরোধী পথনাটকসহ অন্যান্য কর্মকান্ডে ভূমিকা রাখার আহŸান জানান। পরে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে নতুন পুলিশ সুপারকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।