সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আসতেই হবে: এরশাদ

রোববার তিনদিনের সফরে রংপুর এসে তিনি স্থানীয় সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগকে সহায়তা করবে জাতীয় পার্টি।

“আওয়ামী লীগ দেশে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। সমুদ্র জয় করেছে, মহাকাশ জয় করেছে; কিন্তু মানুষের মনে জায়গা করে নিতে পারেনি।

“আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ পরাজিত হলে কী হবে তা আমি বলতে চাই না। তবে আমাকে সঙ্গে নিয়ে হোক আর যেভাবেই হোক আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আসতেই হবে।”

জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ নেবে। আর জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ নিলেই তা গ্রহণযোগ্য হবে বলে মনে করেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সেনাশাসক এরশাদ।

“জাতীয় পার্টিকে বিলীন করার নানান ষড়যন্ত্র করেছিল বিএনপি; কিন্তু তারা পারেনি। আমার উপর অনেক নির্যাতন করেছিল। আমার মত কেউ নির্যাতন সহ্য করেনি। ২৭ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকলেও মানুষের ভালোবাসা নিয়ে জাতীয় পার্টি এখনও টিকে আছে।” 

এরশাদ বলেন, “আগে বলতাম ঘরে খুন বাইরে গুম। এখন বলি, ঘরে ধর্ষণ বাইরে চাকায় পিষ্ট। প্রতিনিয়ত সড়কে মানুষ মরছে। মানুষের জীবনের কোনো মূল্য নেই। মেয়েরা ঘরে ধর্ষিত হচ্ছে। কিন্তু বিচার পাচ্ছে না।”

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এরশাদ বলেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন দেওয়া অত্যন্ত কঠিন। খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

তবে নির্বাচন যেন সুষ্ঠু হয় সে ব্যাপারে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ সময় দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য খালেদ আখতার, সাংসদ শামীম হায়দার পাটোয়ারী, রংপুর  জেলা যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ও মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসীরসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

রংপুরের পথে জাপা চেয়ারম্যান নীলফামারীতে যাত্রাবিরতি করেন। সৈয়দপুরে বাংলা হাইস্কুল মাঠে জাতীয় যুব সংহতির সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা শাখার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য দেন তিনি।

এখানে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটে জাতীয় পার্টি নেই, আর থাকবেও না, তবে বিরোধী দলে আছে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ এই দূত বলেন, জাতীয় পার্টি আগের তুলনায় অনেক সুসগঠিত ও শক্তিশালী। আগামী জাতীয় নির্বাচনে এককভাবে অংশগ্রহণ করতে প্রস্তুত আছে জাতীয় পার্টি।

দেশের মানুষ আর আওয়ামী লীগের উপর বিরক্ত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ৫০টির বেশি আসন পাবে না বলে মন্তব্য করে এরশাদ বলেন, দেশের মানুষ জাতীয় পার্টিকে ভালবাসে, তাই তারা আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে জয়যুক্ত করে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিতে প্রস্তুত।

এ সময় দলের ভাইস চেয়ারম্যান সংসদ সদস্য শওকত আলী চৌধুরী, জাতীয় যুব সংহতি কেন্দ্রীয় সভাপিত আলমগীর সিকদার লোটন, সাধারণ সম্পাদক ফাকরুল আলমগীর,  জেলা সদস্য সচিব এ কে এম সাজ্জাদ পারভেজসহ দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.