সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

কাগজ পেলেই ফাঁসি কার্যকর, প্রস্তুত কারা কর্তৃপক্ষ

নিউজ ডেস্ক : বিচারিক আদালত থেকে মৃত্যু পরোয়ানা (ডেথ ওয়ারেন্ট) এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ফাঁসি কার্যকরের আদেশের কাগজপত্র এলে জেলকোড অনুসারে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের শীর্ষনেতা মুফতি আব্দুল হান্নানসহ তিন জঙ্গির ফাঁসি কার্যকরের প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন। তবে আমরা সব সময়ই ফাঁসি কার্যকরে প্রস্তুত থাকি বলেও মন্তব্য করেন তিনি। রাজধানীর পুরান ঢাকায় পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সংবাদ সম্মেলন আজ বুধবার শেষে এসব কথা জানান তিনি।

সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মুফতি হান্নান ও শরীফ শাহেদুল বিপুলকে গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে এবং দেলোয়ার হোসেন রিপনকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে। ফাঁসির রায়ের বিরুদ্ধে করা দুই জঙ্গির রিভিউ খারিজের রায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ইতোমধ্যেই কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে পৌঁছেছে। এ রায় মুফতি হান্নান ও বিপুলকে পড়েও শোনানো হয়েছে। সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের উদ্দেশ্যেও গেছে এ রায়। পৌঁছানোর পর তা পড়ে শোনানো হবে রিপনকেও।

এরপর তিন জঙ্গির সামনে সর্বশেষ সুযোগ হিসেবে থাকবে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা। তা না চাইলে অথবা প্রত্যাখ্যাত হলে সরকারের সিদ্ধান্ত ও জেলকোড অনুসারে ২১ থেকে ২৮ দিনের মধ্যে (২১ দিনের আগে নয়, তবে ২৮ দিনের মধ্যে) ফাঁসি কার্যকর করবে কারা কর্তৃপক্ষ। আইজি প্রিজন সাংবাদিকদের বলেন, রিভিউ খারিজের রায় আইন অনুসারে গেছে সিলেটের বিচারিক আদালত ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। আদালত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ডেথ ওয়ারেন্ট পাঠাবেন। আর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফাঁসি কার্যকরের দিনক্ষণসহ আদেশ পাঠাবে। এসব আদেশের অনুলিপি আসবে আমার কাছেও। এরপর জেলকোড মেনে ফাঁসির প্রক্রিয়া শুরু করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.