সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

টি-টুয়েন্টি সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশ

আফগানিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে টেস্ট ২২৪ রানের বিশাল ব্যবধানে হারের ধাক্কা সামলে নেয়ার আগেই আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশ।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময়  সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে খেলাটি শুরু হবে।

সিরিজে অংশ নিতে যাওয়া তিন দলের মধ্যে র‍্যাংকিংয়ে সবচেয়ে এগিয়ে আফগানিস্তান, তাদের অবস্থান এখন সাতে। তিন ফরম্যাটের মধ্যে টি-টুয়েন্টিতে বাংলাদেশের সবচেয়ে খারাপ রেকর্ড  তাদের র‍্যাংকিং দশে, জিম্বাবুয়ে আছে চতুর্দশ স্থানে।

জয়ের ধারায় ফিরতে মরিয়া টাইগারদের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেছেন, আমাদের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটা জিততে হবে। যদি আমরা সেটা করতে পারি, তবে সবকিছু নিয়ন্ত্রণের মধ্যে চলে আসার সুযোগ থাকবে।

বাংলাদেশ দলের নতুন হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জয়ের নিশ্চয়তা দিতে পারছেন না। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, টুর্নামেন্টের প্রতিটি ম্যাচই আমরা জয়ের জন্য মাঠে নামবো। তবে টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে যেকোনো দল নিজেদের দিনে যে কাউকে হারাতে পারে। কালকে জয়ের নিশ্চয়তা তাই দিতে পারছি না। তবে যেটা বলতে পারি, আমরা নিশ্চিতভাবেই নিজেদের সেরাটা দেবো।

তবে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা পরিষ্কারভাবেই জানিয়ে দিয়েছেন, বাংলাদেশকে তাদের পক্ষে হারানো সম্ভব। তিনি বলেন, আফগানিস্তান দারুণ টি-টুয়েন্টি খেলছে। আর বাংলাদেশ ঘরের মাটিতে খেলবে। আমি বলবো, দুটো দলই শক্তিশালী। টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে আমাদেরও সাফল্য আছে। এর আগে বাংলাদেশে আমরা বেশ ভালো টি-টুয়েন্টি খেলেছি। এখানকার কন্ডিশন সম্পর্কেও জানি। সুতরাং, আমরা পিছিয়ে থেকে শুরু করছি না।

তবে মাঠের লড়াইয়ে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে আদৌ নামতে পারবে কি না, তা নিয়ে তীব্র সংশয় থেকেই যাচ্ছে। গত কয়েকদিন ধরে বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, আজ শুক্রবার ঢাকায় সারাদিন বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ম্যাচ শুরুর আধা ঘণ্টা আগেও রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাস, যা রাত ৯টার পরেও অব্যাহত থাকতে পারে। তাই ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

সম্ভাব্য একাদশ :  

বাংলাদেশ : লিটন দাস, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তাইজুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, ইয়াসিন আরাফাত।

জিম্বাবুয়ে : হ্যামিল্টন মাসাকাদজা (অধিনায়ক), ব্রেন্ডন টেলর (উইকেটরক্ষক), ক্রেইগ আরভিন, সিন উইলিয়ামস, টিমিসেন মারুমা, রায়ান বার্ল, টিনো মুতম্বোডজি, নেভিলি মাদজিভা, কাইল জার্ভিস, আইনসলে এনল্ডভু, টেন্ডাই চাতারা।