সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

ইউএনও’র প্রচেষ্টায় দেড় শতাধিক পরিবার পেল নতুন প্রশস্থ সড়ক

 

বেড়া প্রতিনিধি, পাবনা।। প্রায় ৩-৪ মাসের প্রচেষ্টার পর পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়নের  হরিরাথপুর গ্রামের পুকুরচালা পাড়া এলাকাবাসীর চলাচলের দেড় ফুট রাস্তাটি পাবনার বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকীর উদ্যোগে   প্রশস্ত করা  হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে এটি প্রশস্থ উদ্বোধন করা হয়।

 

গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি, “দেড় শতাধিক পরিবারের জন্য দেড় ফিট রাস্তা” শিরোনামে  পত্রিকায় একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হবার পর সংখ্যালঘুদের উপর অমানবিকভাবে চাপিয়ে দেয়া এই নির্যাতনের বিষয়ে উপজেলা প্রশাসন অবগত হয়।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় দীর্ঘ ৮-১০ বছর আগেই দেড় শতাধিক সংখ্যালঘু পরিবারের চলাচলের জায়গা না রেখে দোকান, গুদাম ও অফিস ঘর নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছিল স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এতে ওই এলাকার প্রায় পাঁচশতাধিক মানুষের যাতায়াতের জায়গা সংকীর্ণ হয়ে চলাচলের অনুপযুগী হয়ে পড়েছিল। এলাকাবাসি জানান, রাস্তা না রেখে দোকান, গুদামঘর ও অফিস ঘর নির্মাণ করায় বাড়িতে যাতায়াতসহ রিকসা-ভ্যান চলাচলের রাস্তা না থাকায় তারা নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি করতে হাট-বাজারে যেতে পারতেন না। যেখান দিয়ে একজন কোন রকমে বের হতে পারলেও কোন আসবাবপত্র অথবা একসাথে একাধিক ব্যক্তি চলাচল করা যায় না। কোন মানুষ অসুস্থ বা মারা গেলে তাকে তিন জন মিলে মাথার উপরে করে এলাকা থেকে বের করতে হয়।

 

এ বিষয়ে দোকান মালিক, পুরানভারেঙ্গা ইউপি চেয়্যারম্যান, গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে উপজেলা প্রশাসন দফায় দফায় আলোচনা করে, তহসিলদার, সার্ভেয়ারকে দিয়ে সংশ্লিষ্টদের জায়গা মাপানো হয়। কিন্তু চলাচলের পথ প্রশস্ত করা সম্ভব হচ্ছিল না। সর্বশেষ উপজেলা নির্বাহীঅফিসার আসিফ আনাম।সিদ্দিকী  দোকান মালিকদের এই কার্যক্রমকে ফৌজদারি কার্যবিধি, ১৮৯৮ অনুযায়ী গণ উপদ্রব আখ্যায়িত করে নোটিশ জারি করেন।

 

পরবর্তীতে ইউপি চেয়্যারম্যান, অফিসার ইনচার্জ (আমিনপুর থানা), বেড়া পৌর মেয়রের উপস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট দোকানদার ও ব্যবসায়ীদের সাথে  আইন প্রয়োগ পূর্ববর্তী  সর্বশেষ  আলোচনায় ব্যবসায়ীগণ তাদের প্রতিষ্ঠানগুলি দেড় ফুট করে দুই পাশ থেকে ভেঙে নিতে সম্মত হন। যার বাস্তবায়নের ফলে চলাচলের রাস্তাটি প্রায় ৫ ফুট প্রশস্ত হয়েছে, যেখান দিয়ে ভ্যান/রিকশা প্রবেশ করতে পারবে।

দিকে

 

কঠিন সমস্যাটির সমাধান হওয়ায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে সম্মানিত জেলা প্রশাসক, উপজেলা পরিষদ চেয়্যারম্যান, বেড়া পৌর মেয়র, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেড়া সার্কেল, অফিসার ইনচার্জ (আমিনপুর থানা), পুরানভারেঙ্গা ইউপি চেয়্যারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে তাদের আন্তরিক সহযোগিতার  জন্য কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকী।