সভ্যতার আলো

সভ্যতার আলো, তার লিখনী দিয়ে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সভ্য জাতি গঠনে অনন্য ভূমিকা রাখবে

শ্রীনগরে রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচন ও ভাবনা

শ্রীনগর  প্রতিনিধিঃ শ্রীনগরে উপজেলার তন্তর ইউনিয়নের রুসদী গ্রামে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচন আগামী ২০ জুন রোজ বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। দূর্নীতিমুক্ত ও একটি আদর্শ বিদ্যালয় গড়ে তুলার লক্ষে কাজ করতে চান অভিভাবক সদস্য প্রার্থীরা। আসন্ন ২০ জুন রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের (২ বছর মেয়াদী) পরিচালনা পরিষদের অভিভাবক সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীরা ভোটারদের কাছে ছোটছেন। ভোট ও দোয়া কামনা করছেন। অভিভাবক ৪টি সদস্য পদের জন্য নির্বাচনী লড়ছেন করছেন ৮ জন। বিদ্যালয়ের মোট ৭৭৪ জন অভিভাবক ভোটার নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। তবে রহস্যজনক কারণে গত ২০১১ সাল থেকে সিলেকশনভাবে কমিটি গঠন করা হয়েছে। বিদ্যালয়ের আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই জমে উঠেছে পুরো এলাকা। জেলার দুই উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের প্রায় ২২-২৪টি গ্রামের মানুষের মাঝে শুরু হয়েছে কে কে বিজয়ী হতে যাচ্ছেন রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য। 

যদিও গত ৮ বছরের হিসেব অনুযায়ী জানা গেছে, বিদ্যালয়ের মানহীন লেখা পড়া, কোচিং বাণিজ্য, বিভিন্ন অজুহাতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়, একাধিকবার বিদ্যালয় ফান্ডের অর্থ কেলেংকারীর সাথে জরীত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়া, সরকারি অর্থায়নে (অর্ধ কোটি টাকা) নির্মিত বিদ্যালয়ের নতুন ভবনে চলছে রেনেসা কিন্ডার গার্টেন নামক প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চালানো, বিদ্যালয়ের লিজকৃত জায়গার নাম পরিবর্তন করে সাবেক একজন কো-অপ্ট সদস্য নিজের নামে লিজ এনে ওই জায়গায় বাড়ি-ঘর নির্মাণ করে বসবাস করাসহ ইত্যাদি বিষয়ে বিগত ২০১১ সালে সিলেকশন কমিটির উদাসীন মনোভাবকেই দায়ী করছেন সুশিল সমাজের লোকজন। অনেকেই বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ও লেখাপড়ার মান নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তবে গত দুইবছর পূর্বে রানিং কমিটি অবহেলিত বিদ্যালয়টির দায়িত্ব নেয়ার শেষ মূহুর্তে বিদ্যালয় ফান্ডের হিসাব নিকাশ ও মানহীন লেখা পড়ার বিষয়ে করাকরি নজদারি করলে এনিয়ে কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সাথে বিরোধ সৃষ্টি হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিগত ম্যানেজিং কমিটির কয়েকজন সদস্য বিদ্যালয়ের সার্বিক অনিয়মের বিষয়ে কয়েকজন শিক্ষককে দায়ী করেন। তারা জানান, দীর্ঘদিনের অনিয়ম ও শিক্ষকদের দূর্নীতির বিষয়ে কমিটির হস্তক্ষেপ তারা মেনে নিতে পারছেন না। এতে করে একজন শিক্ষক প্রতিনিধি কমিটির সাধারণ সভায় উপস্থিত হননি। এছাড়াও প্রভাবশালী একটি মহল ওই শিক্ষকদের আড়ালে দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন। কয়েকজন অভিভাবক জানান, বিগত কমিটির একটি সিন্ডিকেট পুনরায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠনের লক্ষ্যে সাবেক কয়েকজন সদস্য ও শিক্ষককে দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যদি ব্যক্তি ও রাজনৈতিক গ্রæপিং চলতে থাকে তাহলে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় চরম বিঘœ ঘটবে ও বিদ্যালয়টি তার ঐতিহ্য হারাবে বলে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
তবে সচেতন মহল ও বিদ্যালয়ের শুভাকাংখীরা মনে করেন সকল দূর্নীতির অবসান ঘটিয়ে একটি সুষ্ঠু ও নিরপক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার মধ্যে দিয়ে বিজয়ীরা অবহেলিত বিদ্যালয়টির সার্বিক উন্নতির লক্ষে কাজ করবেন।
উল্লেখ্য যে, রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠনের লক্ষ্যে আগামী ২০ জুন অভিভাবক প্রতিনিধি সদস্য পদে নির্বাচন করছেন মোঃ মহিউদ্দিন হাওলাদার (ব্যালট নং-৬), মাসুদ রানা আলম (ব্যালট-৭), উজ্জল চৌধুরী (ব্যালট-৩), ওয়াহিদ মুরাদ (ব্যালট-৫), আব্দুল কুদ্দুস (ব্যালট-২), এমআর আতাউর রহমান (আক্তার) (ব্যালট-৪), আবুল হোসেন মোল্লা (ব্যালট-১), শফিকুল ইসলাম মিঠু (ব্যালট-৮)। এছাড়াও দাতা সদস্য পদে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন সাবেক অভিভাবক সদস্য মোঃ মঞ্জুর রহমান মঞ্জু ও সাবেক দাতা সদস্য মোঃ আসাদুজ্জামান। শিক্ষক প্রতিনিধি পদে রয়েছেন শিক্ষক আব্দুল লতিফ আতহারী, মোঃ রিয়াজউদ্দিন, মোঃ আবুল হাসেম, নার্গিস পারভীন।